১৬ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ রাত ১১:৫৯
ব্রেকিংনিউজ
দ. সুনামগঞ্জে সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ, দুলাভাইর হাতে শ্যালক খুন দ. সুনামগঞ্জে ভোক্তা অধিকারের অভিযান, ৬ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা রাসেল বক্সের পিতার মৃত্যুতে আনছার উদ্দিনের শোক প্রকাশ দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা পুলিশের মাস্ক বিতরণ ও সচেতনতামূলক প্রচার ৫ এপ্রিল থেকে লকডাউন: ওবায়দুল কাদের সুনামগঞ্জের কৃষি বিভাগের শুভংকরের ফাঁকি অসময়ে ধান কাঁটার তেলেসমাতি বিডি ফিজিশিয়ানের উদ্যোগে বৈজ্ঞানিক সেমিনার ও চিকিৎসা গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন হরতাল : দক্ষিণ সুনামগঞ্জে হেফাজতের পিকেটিং দক্ষিণ সুনামগঞ্জে হেফাজতে ইসলামের বিক্ষোভ দ. সুনামগঞ্জে নানা আয়োজনে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন

কলমে যখন কালি নেই

শহিদ নুর আহমদ
  • আপডেট : শনিবার, ২২ আগস্ট, ২০২০
  • ২০৬ বার পঠিত

যখন প্রাথমিক কিংবা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পড়তাম তখন হঠাৎ কলমে কালি শেষ হলে পড়তাম বিরম্ভনায়। ধরুন স্যারের দেয়া প্রশ্নের উত্তর লিখছি, কলমে আঁকা বন্ধ হয়ে গেছে। কলমে কালি শেষ, এমনটা স্যারকে বললে মসিবত। স্যার হয় রেগে গিয়ে বেত্রাঘাত করবেন নয় ধমক দিবেন। হাতে টাকাও নেই যে দৌড়ে পাশের দোকান থেকে কিনে আনবো। সহপাঠীর লেখা অবদি অপেক্ষা করা। নইলে দুজনে ভাগ করে লেখা। তবে কোনো কোনো সময় কে ডাবল কলম এনেছে, খোঁজ করা আর আপদকালীন কাজ সাড়া।
এতোছিল কলমে কালি না থাকার কারনে লিখতে না পাড়া। ক্লাসে এমনও ছাত্র ছিলো যার নতুন কলম থাকার পরও লিখতে না পাড়া। তাঁর কলমে কালি কলমেই শুকিয়েছে না হয় খাড়াভাবে রাখায় পকেট ময়লা হয়েছে।
নিবন্ধটি লিখতে গিয়ে সেই কলমওয়ালা সহপাঠীদের সাথে মিল পাই কর্মক্ষেত্রে।
বয়স আর অভিজ্ঞতায় সাংবাদিকতায় নিজেকে আনকোরা মনে করি সব সময়। এ পথে অগ্রজদের কাছে শিখছি প্রতিনিয়ত। বাস্তবতার সাথে তাল মিলাতে গিয়ে হরেক জাতের মানুষের সাথে পরিচয় হচ্ছে। সত্য ধারণ, লালন, প্রকাশ করতে গিয়ে হিমসিম পড়তে হচ্ছে পরতে পরতে।
এপেশার অন্যতম হাতিয়ার কলম। কলমের কালিতে কত সত্য উদঘাটিত হয় আর মিথ্যার রচিত হয় কবর। অনিয়মকে যারা নিয়মে পরিণত করেছে কলম তাদের কপালে পড়িয়েছে রাজটিকা।
কিন্তু যখন শোনবে এ পেশার কিছু কলমে কালি নেই। কলম থাকলেও যার কালি বের হয়নি বা হওয়ার আশাও নেই।

জাতির বিবেক বলে যেই পেশাকে কুর্নিশ করে সাধারণ। আজ তা উই পোকাদের দখলে।
যারা সাংবাদিকতাকে নেশা নয় পেশা হিসেবে দেখে। জীবিকার তাগিদে নজর যার অন্যের পকেটে। এরা ধরাকে সরা জ্ঞান করে। গলায় কার্ড ঝুলিয়ে প্রেস লেখা মোটরবাইকে মহড়া দেয় সারাদিন । আহারে মহান পেশা, শিক্ষা আর অভিজ্ঞতা কতই সুলভ এখানে। এরা যেনো আমার সেই শিক্ষাজীবনের কলমওলা সহপাঠীদের মতো। যাদের কলমের কালি শুকিয়েছে পকেটে।

কপি পেস্টের দুনিয়ায় এখন সাংবাদিক হওয়া সহজ। নামকাওয়াস্তে অনলাইন পোর্টালের কার্ড থাকলেই হয়। আর এনড্রয়েড মোবাইল। একেকটা মোবাইল এখন একেকটি টিভি। শুনতে পাচ্ছেন আমাকে? আমি অমুক টিভি থেকে তমুক বলছি।

এবার শেষদিকে যাই, যেইভাবে আনকোরা কলমওয়ালা বাড়ছে একদিন এই পেশাটার আশ্রয় হবে লাইফ সাপোর্টে। এখনই প্রয়োজন যত্ন নেয়ার। সতর্ক থাকার। সাংবাদিক কর্তাব্যক্তিদের উদ্যোগী হয়ে এগিয়ে আসতে হবে। সুনির্দিষ্ট বিধিমালা, কোয়ালিফাই আর প্র্যাক্টিকেল অভিজ্ঞতার বাধ্যবাদকতার শিকলে বাঁধতে হবে। তাহলে এ কলম দেশ ও দশের কথা বলবে। পরাক্রমশালী শক্তির বিরুদ্ধে দাঁড়াবে। গাইবে সত্যের গান।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরও সংবাদ

© All rights reserved ©2020 mahasingh24.com Developed by PAPRHI.XYZ
Theme Dwonload From Ashraftech.Com
ThemesBazar-Jowfhowo