১২ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ রাত ৮:৫০
ব্রেকিংনিউজ
দ. সুনামগঞ্জে সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ, দুলাভাইর হাতে শ্যালক খুন দ. সুনামগঞ্জে ভোক্তা অধিকারের অভিযান, ৬ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা রাসেল বক্সের পিতার মৃত্যুতে আনছার উদ্দিনের শোক প্রকাশ দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা পুলিশের মাস্ক বিতরণ ও সচেতনতামূলক প্রচার ৫ এপ্রিল থেকে লকডাউন: ওবায়দুল কাদের সুনামগঞ্জের কৃষি বিভাগের শুভংকরের ফাঁকি অসময়ে ধান কাঁটার তেলেসমাতি বিডি ফিজিশিয়ানের উদ্যোগে বৈজ্ঞানিক সেমিনার ও চিকিৎসা গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন হরতাল : দক্ষিণ সুনামগঞ্জে হেফাজতের পিকেটিং দক্ষিণ সুনামগঞ্জে হেফাজতে ইসলামের বিক্ষোভ দ. সুনামগঞ্জে নানা আয়োজনে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন

বদলে যাচ্ছে সুনামগঞ্জ পৌরসভা

মহাসিং ডেস্ক
  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৭ আগস্ট, ২০২০
  • ৬৪৭ বার পঠিত

বিশেষ প্রতিনিধি
রাস্তা পাকাকরণ, সড়ক মেড়ামত, ড্রেন স্থাপন, সৌন্দয্যবর্ধন, বাতি সম্প্রসারণ, নদী ও পুকুরের তীর উন্নয়ন, বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ, মিনি পার্ক নির্মাণসহ বহুমূখী উন্নয়নে বদলে যাচ্ছে সুনামগঞ্জ পৌরসভার দৃশ্যপট। পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় এসপিআইআইপি ও আইইউআইডিপি-২ প্রকল্পের আওতায় চলমান রয়েছে ৩০ কোটি টাকার উপরে উন্নয়ন কাজ। অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে আরও ২০ কোটি টাকার রাস্তা উন্নয়ন ও ড্রেন স্থাপনের কাজ। এছাড়াও পরিকল্পনায় আছে সাম্প্রতিক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তাঘাট, ড্রেনের পুনবার্সনের জন্য ১৪ কোটি টাকার কাজ। যা কিছু দিনের মধ্যে সরকারে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের প্রেরণ করা হবে বলে জানিয়েছেন পৌর কর্তৃপক্ষ। উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়নের মাধ্যমে চলতি বছরের শেষে দিকে উন্নয়নমূখী আধুনিক পৌরসভার দৃশ্যমান হবে বলে জানিয়েছে পৌরকর্তৃপক্ষ।
সুমাগঞ্জ পৌরসভা সূত্রে জানা যায়, সুনামগঞ্জ পৌরসভার অবকাঠামো উন্নয়ন (এসপিআইআইপি) প্রকল্পের আওতায় ১৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৫টি প্রকল্প গ্রহণের মাধ্যমে উত্তর আরফিন নগর কমিউনিটি সেন্টার থেকে তেঘরিয়াঘাট পর্যন্ত নদী তীর ও সংলগ্ন রাস্তা সৌন্দর্য্যবর্ধন, উত্তর আরফিন নগর ঘাটলা উন্নয়ন , আরফিন নগর কেবি মক্তব বিসি রোড, কেবি মক্তব নুরুলগনি আরসিসি রোড, বড়পাড়া মানিক মিয়ার বাড়ি থেকে সুরমা নদী আরসিসি রোড উন্নয়ন, তেঘরিয়া সরকারি পুকুর থেকে ময়নার পয়েন্ট আরসিসি রোড, কালিপুর আরসিসি রোড, বিহারী পয়েন্ট থেকে ময়নার পয়েন্ট আরসিসি রোড, কাজির পয়েন্ট থেকে বিয়াম ল্যাবরেটরি আরসিসি রোড, ওয়েজখালী পুলিশ লাইন্স থেকে গণিপুর আরসিসি রোড উন্নয়ন, কাজির পুয়েন্ট স্লুইসগেইট থেকে ধোপাখালি রোড, নতুন পাড়া বিসি ও আরিসিসি রোড সংস্থার, ট্রাফিক পয়েন্ট থেকে ডিসি রোড উন্নয়ন, কামারখাল থেকে নতুন কোর্ট ও বড়পাড়া, নতুনপাড়া, জামতলা, ষোলঘর, বদিপুর ব্রীজ সংলগ্ন ড্রেন উন্নয়ন, আলিমাবাগ মজজিদ থকে পাবলিক লাইব্রেরী আরসিসি ড্রেন নির্মাণ, আবুল হোসেন রোড সংলগ্ন ড্রেন, পশ্চিম আরফিন নগর ড্রেন, পূর্ব নতুনপাড়া ড্রেন , গোসাইবাড়ী ড্রেন ও শহরবালিকা প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে সুইপার কলনি সংলগ্ন ড্রেন উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে।
অপরদিকে গুরুত্বপূর্ণ নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প(আইইউআইডিপি-২) এর আওতায় ১৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৪ প্রকল্পের মাধ্যমে নবীনগর বিসি মেইন রোড, ধোপাখালি আরসিসি রোড সংস্কার, তেঘরিয়া মরল হাটি ভায়া গাজীর দরগাহ মসজিদ-সুরমা নদী পর্যন্ত আরসিসি রোড উন্নয়ন, সুনামগঞ্জ সরকারি হাসপাতাল পয়েন্ট থেকে কলেজ গেইট আরসিসি রোড, কাজীর পয়েন্ট চত্ত্বর প্রসস্থকরণ, পূর্ব সুলতানপুর রোড উন্নয়ন, নতুনপাড়া মেইন ড্রেন প্রস্বস্থকরণ, পশ্চিম নতুন পাড়া আরসিসি ড্রেন নির্মাণ, মোহাম্মদপুর মেইন রোড থেকে মাজার পয়েন্ট পুনবার্সন, এসপি বাংলো সংলগ্ন আরসিসি রোড উন্নয়ন, কেন্দ্রীয় ঈদগাহ আরসিসি রোড, পশ্চিম হাজিপাড়া থেকে বড়পাড়া নদীর পাড় রোড উন্নয়ন, পূর্ব নতুনপাড়া গোসাইবাড়ী রোড, হাসনবসত রোড, জামতলা রোড, মল্লিকপুর গোদারঘাট আরসিসি রোড, বড়পাড়া আরসিসি মূলরোড,ষোলঘর-গনিরপয়েন্ট আরসিসি রোড, পানসী রেস্টুরেন্ট সংলগ্ন আরসিসি ড্রেন,স্টেডিয়াম থেকে ডিসি বাংলো রোড, হাসননগর আরসিসি রোড উন্নয়ন,হাজীপাড়া সিঙ্গেল বক্স কালভার্ট নির্মাণ, জামাইপাড়া রোড, ওয়েজখালী মাঝের হাটি আরসিসি ড্রেন, খালিপুর আরসিসি মেইনরোড, বাঁধনপাড়া আরসিসি রোড কাম ড্রেন স্থাপন, কালীবাড়ী আরসিসি রোড, নতুনপাড়া আরসিসি মেইনরোড, মহিলা কলেজ রোড সংলগ্ন আরসিসি ড্রেন শিল্পকলা একাডেমি সংলগ্ন আরসিসি ড্রেন, হাসননগর-পশ্চিম সুলতানপুর আরসিসি রোড, হাজিপাড়া আরসিসি ড্রেন, পূর্ব নতুনপাড়া আরসিসি রোড ও ড্রেন, নতুনপাড়া মেইন রোড থেকে আবুল হোসেন রোড, আফতাব নগর আরসিসি রোড, ওয়েজখালী মসজিদ সংলগ্ন আরসিসি রোড, হাছননগর পানি শোধনাগার সংলগ্ন আরসিসি রোড উন্নয়নের কাজ চলমান রয়েছে বলে জানা যায়।
এদিকে পৌসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে পানি সেবা পৌঁছে দিতে কোটি টাকা ব্যয়ে স্টেডিয়াম এলাকায় নির্মাণ করা হয়েছে আরেকটি নতুন পানি শোধনাগার। যার মাধ্যমে আরও ৩ হাজার গ্রাহক সেবা প্রদান করা যাবে। পানি সেবা পৌঁছে দিতে টানা হচ্ছে লাইন। ডিসেম্বরের মধ্যেই উদ্বোধন করা হবে নতুন পানি শোধনাগার। এছাড়াও নাগরিকদের বিশুদ্ধ পানি সরবরাহে পৌরসভা এলাকায় আরও ৫০০ গভীর স্থাপনের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে চাহিদা পাঠানো হয়েছে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। পৌরসভা এলাকায় নতুন ১ হাজার এলিডি লাইট স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে পৌরসভা। যার মাধ্যমে বর্ধিত এলাকায় বাতি স্থাপন, শহর আলোকিত, দৃষ্টিনন্দন হবে বলে জানা যায়।
সৌন্দর্য্যবর্ধনে শহরের কাজীর পয়েন্ট, বিহারী পয়েন্ট ও কালীবাড়ী মোড়ে চত্ত্বর স্থাপনের পরিকল্পনা করা হচ্ছে। যার মাধ্যমে শহর আরও দৃষ্টিনন্দন হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। চলতি বাজেটে স্টেডিয়াম সংলগ্ন বাঁধপাড়া রোডের প্রবেশমুখে একটি মিনি পার্ক স্থাপন করা হবে। যেখানে পথচারীরা বিশ্রাম নেয়ার পাশাপাশি অবসরের সময় কাটাতে পারবেন। শহরের বর্ধিত এলাকায় একটি শিশুপার্ক স্থাপনের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে পৌরসভা। যা আগামী অর্থবছরে চুড়ান্ত করা হবে বলে জানা যায়।
করোনাকালে প্রাকৃতিক দুর্যোগ উপেক্ষা করে উন্নয়ন কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। চলতি বছরের শেষের দিকে নগরবাসী একটি উন্নয়নমুখী পৌরসভার দৃশ্যপট দেখতে পারবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন পৌর মেয়র নাদের বখত।
চলমান উন্নয়নে সরকারের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে তিনি বলেন, মধ্যম আয়ের দিকে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। সরকারের উন্নয়নের মহাসড়কে সুনামগঞ্জ পৌরসভা রয়েছে। পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে ৩০ কোটি টাকা কাজ চলমান রয়েছে। অচিরেই আরও ২০ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদ হতে যাচ্ছে। চলমান কাজ বাস্তবায়নের মাধ্যমে নগরবাসী একটি উন্নয়নমূখী আধুনিকত পৌর শহরকে দেখতে পাবেন। যেখানে সুষমউন্নয়ন বিদ্যমান। সুনামগঞ্জ পৌরসভার চলমান উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়নে বিশেষ অবদান রাখায় সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নানের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।
বদলে যাচ্ছে সুনামগঞ্জ পৌরসভা
বিশেষ প্রতিনিধি
রাস্তা পাকাকরণ, সড়ক মেড়ামত, ড্রেন স্থাপন, সৌন্দয্যবর্ধন, বাতি সম্প্রসারণ, নদী ও পুকুরের তীর উন্নয়ন, বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ, মিনি পার্ক নির্মাণসহ বহুমূখী উন্নয়নে বদলে যাচ্ছে সুনামগঞ্জ পৌরসভার দৃশ্যপট। পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় এসপিআইআইপি ও আইইউআইডিপি-২ প্রকল্পের আওতায় চলমান রয়েছে ৩০ কোটি টাকার উপরে উন্নয়ন কাজ। অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে আরও ২০ কোটি টাকার রাস্তা উন্নয়ন ও ড্রেন স্থাপনের কাজ। এছাড়াও পরিকল্পনায় আছে সাম্প্রতিক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তাঘাট, ড্রেনের পুনবার্সনের জন্য ১৪ কোটি টাকার কাজ। যা কিছু দিনের মধ্যে সরকারে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের প্রেরণ করা হবে বলে জানিয়েছেন পৌর কর্তৃপক্ষ। উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়নের মাধ্যমে চলতি বছরের শেষে দিকে উন্নয়নমূখী আধুনিক পৌরসভার দৃশ্যমান হবে বলে জানিয়েছে পৌরকর্তৃপক্ষ।
সুমাগঞ্জ পৌরসভা সূত্রে জানা যায়, সুনামগঞ্জ পৌরসভার অবকাঠামো উন্নয়ন (এসপিআইআইপি) প্রকল্পের আওতায় ১৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৫টি প্রকল্প গ্রহণের মাধ্যমে উত্তর আরফিন নগর কমিউনিটি সেন্টার থেকে তেঘরিয়াঘাট পর্যন্ত নদী তীর ও সংলগ্ন রাস্তা সৌন্দর্য্যবর্ধন, উত্তর আরফিন নগর ঘাটলা উন্নয়ন , আরফিন নগর কেবি মক্তব বিসি রোড, কেবি মক্তব নুরুলগনি আরসিসি রোড, বড়পাড়া মানিক মিয়ার বাড়ি থেকে সুরমা নদী আরসিসি রোড উন্নয়ন, তেঘরিয়া সরকারি পুকুর থেকে ময়নার পয়েন্ট আরসিসি রোড, কালিপুর আরসিসি রোড, বিহারী পয়েন্ট থেকে ময়নার পয়েন্ট আরসিসি রোড, কাজির পয়েন্ট থেকে বিয়াম ল্যাবরেটরি আরসিসি রোড, ওয়েজখালী পুলিশ লাইন্স থেকে গণিপুর আরসিসি রোড উন্নয়ন, কাজির পুয়েন্ট স্লুইসগেইট থেকে ধোপাখালি রোড, নতুন পাড়া বিসি ও আরিসিসি রোড সংস্থার, ট্রাফিক পয়েন্ট থেকে ডিসি রোড উন্নয়ন, কামারখাল থেকে নতুন কোর্ট ও বড়পাড়া, নতুনপাড়া, জামতলা, ষোলঘর, বদিপুর ব্রীজ সংলগ্ন ড্রেন উন্নয়ন, আলিমাবাগ মজজিদ থকে পাবলিক লাইব্রেরী আরসিসি ড্রেন নির্মাণ, আবুল হোসেন রোড সংলগ্ন ড্রেন, পশ্চিম আরফিন নগর ড্রেন, পূর্ব নতুনপাড়া ড্রেন , গোসাইবাড়ী ড্রেন ও শহরবালিকা প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে সুইপার কলনি সংলগ্ন ড্রেন উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে।
অপরদিকে গুরুত্বপূর্ণ নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প(আইইউআইডিপি-২) এর আওতায় ১৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৪ প্রকল্পের মাধ্যমে নবীনগর বিসি মেইন রোড, ধোপাখালি আরসিসি রোড সংস্কার, তেঘরিয়া মরল হাটি ভায়া গাজীর দরগাহ মসজিদ-সুরমা নদী পর্যন্ত আরসিসি রোড উন্নয়ন, সুনামগঞ্জ সরকারি হাসপাতাল পয়েন্ট থেকে কলেজ গেইট আরসিসি রোড, কাজীর পয়েন্ট চত্ত্বর প্রসস্থকরণ, পূর্ব সুলতানপুর রোড উন্নয়ন, নতুনপাড়া মেইন ড্রেন প্রস্বস্থকরণ, পশ্চিম নতুন পাড়া আরসিসি ড্রেন নির্মাণ, মোহাম্মদপুর মেইন রোড থেকে মাজার পয়েন্ট পুনবার্সন, এসপি বাংলো সংলগ্ন আরসিসি রোড উন্নয়ন, কেন্দ্রীয় ঈদগাহ আরসিসি রোড, পশ্চিম হাজিপাড়া থেকে বড়পাড়া নদীর পাড় রোড উন্নয়ন, পূর্ব নতুনপাড়া গোসাইবাড়ী রোড, হাসনবসত রোড, জামতলা রোড, মল্লিকপুর গোদারঘাট আরসিসি রোড, বড়পাড়া আরসিসি মূলরোড,ষোলঘর-গনিরপয়েন্ট আরসিসি রোড, পানসী রেস্টুরেন্ট সংলগ্ন আরসিসি ড্রেন,স্টেডিয়াম থেকে ডিসি বাংলো রোড, হাসননগর আরসিসি রোড উন্নয়ন,হাজীপাড়া সিঙ্গেল বক্স কালভার্ট নির্মাণ, জামাইপাড়া রোড, ওয়েজখালী মাঝের হাটি আরসিসি ড্রেন, খালিপুর আরসিসি মেইনরোড, বাঁধনপাড়া আরসিসি রোড কাম ড্রেন স্থাপন, কালীবাড়ী আরসিসি রোড, নতুনপাড়া আরসিসি মেইনরোড, মহিলা কলেজ রোড সংলগ্ন আরসিসি ড্রেন শিল্পকলা একাডেমি সংলগ্ন আরসিসি ড্রেন, হাসননগর-পশ্চিম সুলতানপুর আরসিসি রোড, হাজিপাড়া আরসিসি ড্রেন, পূর্ব নতুনপাড়া আরসিসি রোড ও ড্রেন, নতুনপাড়া মেইন রোড থেকে আবুল হোসেন রোড, আফতাব নগর আরসিসি রোড, ওয়েজখালী মসজিদ সংলগ্ন আরসিসি রোড, হাছননগর পানি শোধনাগার সংলগ্ন আরসিসি রোড উন্নয়নের কাজ চলমান রয়েছে বলে জানা যায়।
এদিকে পৌসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে পানি সেবা পৌঁছে দিতে কোটি টাকা ব্যয়ে স্টেডিয়াম এলাকায় নির্মাণ করা হয়েছে আরেকটি নতুন পানি শোধনাগার। যার মাধ্যমে আরও ৩ হাজার গ্রাহক সেবা প্রদান করা যাবে। পানি সেবা পৌঁছে দিতে টানা হচ্ছে লাইন। ডিসেম্বরের মধ্যেই উদ্বোধন করা হবে নতুন পানি শোধনাগার। এছাড়াও নাগরিকদের বিশুদ্ধ পানি সরবরাহে পৌরসভা এলাকায় আরও ৫০০ গভীর স্থাপনের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে চাহিদা পাঠানো হয়েছে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। পৌরসভা এলাকায় নতুন ১ হাজার এলিডি লাইট স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে পৌরসভা। যার মাধ্যমে বর্ধিত এলাকায় বাতি স্থাপন, শহর আলোকিত, দৃষ্টিনন্দন হবে বলে জানা যায়।
সৌন্দর্য্যবর্ধনে শহরের কাজীর পয়েন্ট, বিহারী পয়েন্ট ও কালীবাড়ী মোড়ে চত্ত্বর স্থাপনের পরিকল্পনা করা হচ্ছে। যার মাধ্যমে শহর আরও দৃষ্টিনন্দন হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। চলতি বাজেটে স্টেডিয়াম সংলগ্ন বাঁধপাড়া রোডের প্রবেশমুখে একটি মিনি পার্ক স্থাপন করা হবে। যেখানে পথচারীরা বিশ্রাম নেয়ার পাশাপাশি অবসরের সময় কাটাতে পারবেন। শহরের বর্ধিত এলাকায় একটি শিশুপার্ক স্থাপনের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে পৌরসভা। যা আগামী অর্থবছরে চুড়ান্ত করা হবে বলে জানা যায়।
করোনাকালে প্রাকৃতিক দুর্যোগ উপেক্ষা করে উন্নয়ন কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। চলতি বছরের শেষের দিকে নগরবাসী একটি উন্নয়নমুখী পৌরসভার দৃশ্যপট দেখতে পারবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন পৌর মেয়র নাদের বখত।
চলমান উন্নয়নে সরকারের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে তিনি বলেন, মধ্যম আয়ের দিকে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। সরকারের উন্নয়নের মহাসড়কে সুনামগঞ্জ পৌরসভা রয়েছে। পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে ৩০ কোটি টাকা কাজ চলমান রয়েছে। অচিরেই আরও ২০ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদ হতে যাচ্ছে। চলমান কাজ বাস্তবায়নের মাধ্যমে নগরবাসী একটি উন্নয়নমূখী আধুনিকত পৌর শহরকে দেখতে পাবেন। যেখানে সুষমউন্নয়ন বিদ্যমান। সুনামগঞ্জ পৌরসভার চলমান উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়নে বিশেষ অবদান রাখায় সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নানের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরও সংবাদ

© All rights reserved ©2020 mahasingh24.com Developed by PAPRHI.XYZ
Theme Dwonload From Ashraftech.Com
ThemesBazar-Jowfhowo