২৬শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ রাত ১:৫৫
ব্রেকিংনিউজ
সাংবাদিক হোসাইনের পিতার ইন্তেকাল, প্রেসক্লাবসহ সুধীজনদের শোকপ্রকাশ কেন্দ্রীয় যুবদলের সহ-সভাপতি আনছার উদ্দিনের ঈদ শুভেচ্ছা ঈদে শপিং করে ফেরার পথে স্পিডবোট ডুবে মা-মেয়ের মৃত্যু পূর্ব বীরগাঁও ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নূর কালামের ঈদ শুভেচ্ছা পূর্ব বীরগাঁও ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শহীদুর রহমান শহিদের ঈদ শুভেচ্ছা দ. সুনামগঞ্জ উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক সুহেল মিয়ার ঈদ শুভেচ্ছা দ. সুনামগঞ্জ মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি ও আফাজল ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ডা. শাকিল মুরাদ আফজলের ঈদ শুভেচ্ছা আফজল ফাউন্ডেশন যাকাতের শাড়ি পেলেন ৯০ জন দুঃস্থ নারী যুক্তরাজ্য প্রবাসী এহসান মির্জার ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা বিনিময় ফ্রান্স প্রবাসী ক্রিড়াবিদ আতিকুর রহমানের ঈদ শুভেচ্ছা

দক্ষিণ সুনামগঞ্জে অরক্ষিত মুক্তিযোদ্ধাদের সমাধিস্থল

নোহান আরেফিন নেওয়াজ
  • আপডেট : বুধবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ২৬০ বার পঠিত

স্বাধীনতার ৪৯ বছর পেরিয়ে সুবর্ণজয়ন্তীতে পদার্পণ করেছে সবুজ-শ্যামল বাংলাদেশ। সুদীর্ঘ নয়মাসের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধে মাতৃভূমিকে স্বাধীন করতে শহিদ হয়েছেন ত্রিশ লক্ষ মানুষ।

তবে স্বাধীনতার ৪৯ বছর পেরিয়ে গেলেও অরক্ষিত অবহেলায় পড়ে আছে দক্ষিণ সুনামগঞ্জের মুক্তিযোদ্ধাদের সমাধিস্থল। আর দীর্ঘদিনে এসব সমাধিস্থল রক্ষণাবেক্ষণ না করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রা।

মঙ্গলবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার জয়কলস ইউনিয়নের উজানীগাঁও গ্রামে ১৯৭১ সালে পাক হানাদার বাহিনীর সাথে সম্মুখ যুদ্ধে নিহত শহীদ মুক্তিযোদ্ধা তালেব আলী ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা কৃপেন্দ্র দাসের সমাধিস্থল। তবে তাদের সমাধিস্থল রয়েছে অরক্ষিত অবস্থায়। সমাধিস্থলের চারপাশ দেয়ালে ঘেরা থাকলেও নেই মুলফটক। এছাড়া এখানে শহিদ মুক্তিযোদ্ধা তালেব আলীর সমাধিস্থলে নামফলক থাকলে ও অপর শহিদ মুক্তিযোদ্ধা কৃপেন্দ্র দাসের সমাধিস্থলের কোনও চিহ্ন মাত্রই নেই। তাছাড়া শহিদ তালেব আলীর ফলকে খোদাই করা লেখা সংরক্ষণের অভাবে অস্পষ্ট রয়েছে।

শহিদ মুক্তিযোদ্ধাদের সমাধিস্থলের এমন দুর্দশায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রা। সরকারিভাবে সংস্করণের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় অনেকে।

উপজেলার জয়কলস উজানীগাঁও গ্রামের প্রবীণ মুরব্বি নুরুল ইসলাম বলেন, ‘সর্বশেষ কবে মুক্তিযোদ্ধাদের সমাধিস্থল সংস্কার করা হয়েছিল মনে নেই। প্রতিবছর শহিদ দিবস, বিজয় দিবসসহ জাতীয় দিবসগুলোতে তাদের সমাধিস্থলে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয় ঠিকই। তবে তাদের সমাধিস্থল সংস্কারের কোনও উদ্যোগ নিতে দেখা যায় না।’

এ ব্যাপারে উপজেলার সাবে মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আতাউর রহমান বলেন, ‘শহিদ মুক্তিযোদ্ধাদের সমাধিস্থল এবং বধ্যভূমি সংস্কারে আমি বারবার আবেদন জানিয়ে আসছি। তবে আশানুরূপ কোনও সংস্কার কাজ হয়নি।’

এ ব্যাপারে উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ বলেন, ‘শহিদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সমাধিস্থল ও বধ্যভূমি সংরক্ষণের জন্য উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে উদ্যোগ নেওয়া হবে।’

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরও সংবাদ

© All rights reserved ©2020 mahasingh24.com Developed by PAPRHI.XYZ
Theme Dwonload From Ashraftech.Com
ThemesBazar-Jowfhowo